হার্ডিক পান্ডিয়ার যে আচরণ নিয়ে বিতর্ক: দ্বিতীয় ম্যাচে হার

হার্ডিক পান্ডিয়ার যে আচরণ নিয়ে বিতর্ক: দ্বিতীয় ম্যাচে হার

সফরকারী শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে জিতলেও বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় ম্যাচে হেরে গেছে ভারত। পুণের মাঠে হারতে হয়েছে ১৭ রানে। তবে হারের কাঁটার মাঝেই অধিনায়ক হার্ডিক পান্ডিয়ার একটি আচরণ নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

ম্যাচে ভারত হার স্বীকার করার আগেই ডাগআউটে উঠে দাঁড়িয়ে সতীর্থদের সঙ্গে হাত মেলাতে শুরু করেন তিনি। সমর্থকদের প্রশ্ন, এত তাড়াহুড়ো কী কারণে?

রান তাড়া করতে নেমে ভারতের ইনিংসের শেষ বল তখনও বাকি। এক বলে দরকার ছিল ১৭ রান, যা কোনওভাবেই সম্ভব ছিল না। ক্রিজে ছিলেন উমরান মালিক এবং শিবম মাভি। শেষ বল হওয়ার আগে আচমকাই ডাগ আউটে উঠে দাঁড়িয়ে পড়েন হার্ডিক। হাত মেলাতে থাকেন একের পর এক সতীর্থের সঙ্গে। শুভমান গিল, ঈশান কিশান, সূর্যকুমার যাদব সবার সঙ্গেই হাত মেলান। সাধারণত ম্যাচ শেষ হয়ে

গেলে সতীর্থ এবং বিপক্ষের ক্রিকেটাররা একে অপরের সঙ্গে করমর্দন করেন। এ ক্ষেত্রে কেন ম্যাচ শেষ হওয়ার অপেক্ষা করলেন না হার্ডিক, তা নিয়েই প্রশ্ন উঠেছে। চলছে বিতর্ক।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ কেউ বিষয়টিকে মজা হিসেবেই নিয়েছেন। লিখেছেন, “এখন হার্ডিকের যুগ। সব কিছুই ঘটতে পারে।”

তার বিরোধিতা করে আরেকজন লেখেন,“হার্ডিকের আচরণ দেখে অদ্ভুত লাগল। আগে কখনও এমন কিছু দেখিনি।”

আরেকজন লিখেছেন,“এই আচরণের মাধ্যমে ক্রিকেট খেলাটাকেই অশ্রদ্ধা করল হার্ডিক। বোর্ডের উচিত ওর সঙ্গে কথা বলা।”

এদিকে, ১৬ রানে শ্রীলঙ্কার কাছে হারের পরে হার্ডিক কিছুটা হলেও দায় চাপিয়েছেন আর্শদীপের উপর। তিনি বলেছেন, “আগেও আর্শদীপ অনেক নো বল করেছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নো বল হল একটা অপরাধ। সেটা ওকে বুঝতে হবে। নিজের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে হবে। তবেই ও ভাল বল করতে পারবে।”

ম্যাচে ২ ওভারে পাঁচটি নো বল করেন আর্শদীপ। তার মধ্যে নো বলের হ্যাটট্রিকও রয়েছে। বারবার একই ভুল করছিলেন আর্শদীপ। নো বলের জন্য একটি উইকেটও পাননি তিনি। তার খারাপ বোলিংয়ের খেসারত দিতে হয় ভারতীয় দলকে।

বারবার আর্শদীপকে নো বল করতে দেখে হতাশ হয়ে যান অধিনায়ক হার্ডিক। আর্শদীপ ভারতের প্রথম বোলার যিনি নো বলের হ্যাটট্রিক করলেন।

বোলিং ও ব্যাটিং, দু ক্ষেত্রেই পাওয়ার প্লে-তে তারা খারাপ খেলেছেন বলে স্বীকার করে নিয়েছেন হার্ডিক। তিনি বলেছেন, “বোলিংয়ের শুরুটা ভাল হয়নি আমাদের। ব্যাট হাতেও শুরুটা খারাপ হয়েছে। পাওয়ার প্লে-তে ভাল খেলতে পারিনি।

তবে খেলায় একটা দিন ভাল-খারাপ হতেই পারে। আমরা নিজেদের ভুল থেকে শিক্ষা নেওয়ার চেষ্টা করব।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *