সাফারী পার্কের প্রাণী মৃত্যুর সাথে জড়িত দের ছাড় দেয়া হবে না,পরিবেশ জলবায়ু মন্ত্রী

সাফারী পার্কের প্রাণী মৃত্যুর সাথে জড়িত দের ছাড় দেয়া হবে না,পরিবেশ জলবায়ু মন্ত্রী

শ্রীপুর(গাজীপুর)প্রতিনিধি:

 

প্রাণী মৃত্যুর সঙ্গে জরিত কর্মকর্তাদের প্রাণী মৃত্যু সঙ্গে দায়িত্ব অবহেলায় প্রমাণ পেলে তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইতিমধ্যে বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সঞ্জয় কুমার ভৌমিককে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী দশ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিবে। গতকাল গাজীপুরের শ্রীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক পরিদর্শন কালে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

 

এ সময় মন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে গত কয়েক মাসে যে কতটি প্রাণী মারা গেছে তার তথ্য উদঘাটনের জন্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দেয়া হয়েছে। প্রাণী মৃত্যু ঠেকাতে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হবে। জ্রেবা, বাঘ ও সিংহী মৃত্যুর সঙ্গে কোন কর্মকর্তা জরিত থাকার প্রমান পেলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রাণী মৃত্যুর সঙ্গে কারোর কোন ইন্ধন থাকলে তা তদন্ত করে বেড় করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রাণী মৃত্যুর পিছনে কে কে জরিত তাও খোঁজে বেড় করা হবে। আজ আমরা সরজমিনে পরিদর্শন করে দেখবো। তদন্ত রিপোর্ট গুলো দেখে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। মন্ত্রণালয় এখন পর্যন্ত তদন্ত কমিটির রিপোর্ট পর্যন্ত অপেক্ষা করবে। তদন্ত কমিটিকে বেঁধে দেয়া সময় পর্যন্ত আমরা অপেক্ষা করবো। প্রাণী মৃত্যু ঘটনার পর পার্কের প্রকল্প পরিচালক মো. জাহিদুর কবির, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সহকারী বনসংরক্ষক মো. তবিবুর রহমান ও ভেটেরিনারি অফিসার ডাঃ হাতেম সাজ্জাদ, মুহাম্মদ জুলাকারনাইকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আজ সরজমিনে খোঁজ খবর নিয়ে দেখবো। পার্কে কতগুলো প্রাণী অসুস্থ রয়েছে। তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপ-মন্ত্রী হাবিবুন নাহার, স্থানীয় সাংসদ মুহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ, বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোস্তফা কামাল, বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সঞ্জয় কুমার ভৌমিক, প্রধান বনসংরক্ষক আমির হোসাইন চৌধুরী, গাজীপুর জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তরিকুল ইসলাম প্রমুখ।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *