সরিষাবাড়ীর মাসুদের গরু-খাসির মিল্লি আর্জেন্টিনা সমর্থক

সরিষাবাড়ীর মাসুদের গরু-খাসির মিল্লি আর্জেন্টিনা সমর্থক

মাসুদ জানান, মিল্লি ভোজে তিনি মেসি, ডি মারিয়াসহ আর্জেন্টিনা ফুটবল দল, বাংলাদেশের ক্রিকেটার মাশরাফি এবং সাকিব আল হাসানকে দাওয়াত দেবেন।

পারিবার জানায়, শৈশব থেকেই ক্রীড়া ও বিনোদনের প্রতি মাসুদের রয়েছে তীব্র ঝোঁক।

প্রিয় দল আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জেতায় ১০টি গরু-খাসি দিয়ে জেলার ঐতিহ্যবাহী মিল্লি ভোজের আয়োজন করতে যাচ্ছেন জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার মাসুদুর রহমান নামের এক যুবক।

গত ১৮ নভেম্বর ১ হাজার ৬০ ফুট লম্বা আর্জেন্টিনার পতাকা বানিয়ে শোভাযাত্রা করেন মাসুদ। সেদিন প্রিয় দল চ্যাম্পিয়ন হলে পাঁচটি গরু জবাই করে মিল্লি ভোজের ঘোষণা দেন তিনি।

প্রতিশ্রুতি রাখতে আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি এ আয়োজন করতে যাচ্ছেন সরিষাবাড়ী পৌরসভার চর ধানাটা গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে মাসুদুর রহমান (২৬)। তবে শুধু পাঁচটি গরু নয়, তার আয়োজনে যুক্ত হয়েছে পাঁচটি খাসিও।

মিল্লি ভোজের পাশাপাশি সেদিন কনসার্টের আয়োজনও থাকছে। এতে চলচ্চিত্র জগতের শিল্পী ছাড়াও বর্তমান সময়ের আলোচিত কয়েকজন কন্ঠশিল্পীও থাকবেন বলে জানান মাসুদ।

মাসুদুর জানান, আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি মিল্লি ভোজের দিন সরিষাবাড়ীতে তিনি মেসি, ডি মারিয়াসহ আর্জেন্টিনা ফুটবল দল, বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের মাশরাফি এবং সাকিব আল হাসানকেও আমন্ত্রণ জানাবেন।

ফুটবলপ্রেমী যুবক মাসুদুর রহমান ঢাকা তেজগাঁও কলেজের সম্মান তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি দৈনিক জনবাণী ও দৈনিক আলোচিত জামালপুর পত্রিকার নিজস্ব প্রতিবেদক হিসেবে কাজ করছেন। এর আগে বাংলা টিভি ও মুভি বাংলা টিভিতে কাজ করেছেন বলে দাবি মাসুদের।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মাসুদ আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের ঘোর সমর্থক। মেসি তার পছন্দের খেলোয়াড়। গত ১৮ নভেম্বর ১ হাজার ৬০ ফুট লম্বা আর্জেন্টিনার পতাকা বানিয়ে শোভাযাত্রাও করেন।

শোভাযাত্রা শেষে ঘোষণা দেন, আর্জেন্টিনা চ্যাম্পিয়ন হলে গরু জবাই করে মিল্লি ভোজ দেবেন।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে প্রায় ৫০ হাজার টাকা খরচ করে স্থানীয় আরামনগর বাজার থেকে পৌরসভা, শিল্পকলা, ডাক বাংলোর শেষ পর্যন্ত ১ হাজার ৬০ ফুট লম্বা আর্জেন্টিনার পতাকা টানান মাসুদ।

উদ্বোধনী ম্যাচসহ আর্জেন্টিনার প্রতিটি খেলা উপভোগের জন্য নিজ খরচে বড় পর্দার ব্যবস্থা, আর্জেন্টিনার প্রতিটি খেলায় খিচুড়ি, বিরিয়ানি ও মিল্লি ভোজনের আয়োজন করেন তিনি।

মাসুদের দাবি, এতে তার অন্তত সাড়ে ৩ লাখ টাকা খরচ হয়।

গত ১৮ ডিসেম্বর রাতে আর্জেন্টিনা-ফ্রান্সের ফাইনালে দেড় হাজার আর্জেন্টিনা সমর্থককে খিচুড়ি খাওয়ানোর পাশাপাশি বড় পর্দায় খেলা দেখার ব্যবস্থা করেন। এতে লক্ষাধিক টাকা খরচ হয়েছে বলে দাবি মাসুদের।

এলাকাবাসী ও পারিবারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শৈশব থেকেই ক্রীড়া ও বিনোদনের প্রতি তীব্র ঝোঁক মাসুদের।

ফুটবল খেলা বোঝার বয়স থেকেই তিনি মেসি ও তার দল আর্জেন্টিনার ভক্ত। গত বিশ্বকাপ উৎসবে প্রিয় দলকে নিয়ে নানা পরিকল্পনা থাকলেও মাঝপথে ছিটকে যাওয়ায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন তিনি।

সে সময় টানা তিনদিন ভাত না খেয়ে ছিলেন। তবে এবার মেসিদের সাফল্যে গতবারের দুঃখ পুরোটাই ঘুচেছে।

সাংবাদিকদের ধন্যবাদ জানিয়ে শুক্রবার দুপুরে মাসুদুর রহমান বলেন, “দীর্ঘ ৩৬ বছর পর আর্জেন্টিনা কাপ নিয়েছে, এতে আমি আনন্দিত। পাঁচটি গরু জবাই দিয়ে জামালপুরের ঐতিহ্যবাহী মিল্লি ভোজের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম, সেটি আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি আয়োজন করা হবে।

“এ ছাড়াও পাঁচটি ছাগলও জবাই হবে। এ ব্যবস্থা সনাতন ধর্মাবলম্বী ভাইদের জন্য। সব মিলিয়ে প্রায় ১০/১৫ হাজার মানুষ এ মিল্লি ভোজন করতে পারবেন।”

মিল্লি জামালপুর জেলার একটি ঐতিহ্যবাহী খাবার। এই এলাকার সবচেয়ে সুস্বাদু আর জনপ্রিয় খাবারের নামই মিল্লি। মিল্লি তৈরিতে উপকরণ হিসেবে গরু, খাসি অথবা মহিষের মাংস, চালের গুঁড়া, আলু, পেঁয়াজ, রসুন, আদা, জিরাসহ নানা প্রকার মসলার ব্যবহার হয়।

এ খাবার তৈরির ক্ষেত্রে মাংস নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ। মিল্লি’র জন্য মাংস বড় করে কাটতে হয়। মাংসের সঙ্গে চর্বি ও হাড় অবশ্যই থাকতে হবে; সঙ্গে চালের গুঁড়া। চালের গুঁড়া খাবারটাকে ঘন করে। এতে ভিন্ন স্বাদ পাওয়া যায়। মিল্লি প্রায় তৈরি হয়ে গেলে রসুন, পেঁয়াজ আর জিরা দিয়ে যে বাগাড় দেওয়া হয়, তাতেই মিল্লির স্বাদে পূর্ণতা আসে।

অনেকে এটাকে ‘ম্যান্দা’ বা ‘মিলানি’ও বলেন। কেউ ডাকেন ‘পিঠালি’ নামে। যে নামেই ডাকা হোক, এ খাবার জামালপুরের শত বছরের ঐহিত্য বহন করছে।

এদিকে, আয়োজন সফল করতে ইতোমধ্যে প্রস্তুতি শুরু করেছেন বলে শীর্ষনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান মাসুদুর রহমান।

তার দাবি, এ আয়োজনে আর্জেন্টিনা সমর্থক অনেকেই আর্থিক সহযোগিতা করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু তিনি কারও কোনো সহযোগিতা নিতে নারাজ।

তার ভাষ্য, “আমার জমানো চার লাখ এবং পরিবারের পক্ষ থেকে আরও দুই লাখ টাকা দিয়ে এ আয়োজন করব। যদি আরও টাকার প্রয়োজন হয়, বাবা জমি বিক্রি করে দেবেন।”

এ বিষয়ে সরিষাবাড়ী থানার ওসি মুহাম্মদ মহব্বত কবীর স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, মাসুদ আর্জেন্টিনার বড় মাপের একটি পতাকা টানিয়েছিল। এ ছাড়া প্রতিটি খেলার দিন তিনি বড় ধরনের আয়োজন করে। সেখানে আর্জেন্টিনার সমর্থকরা অংশ নেন।

মাসুদের মিল্লি ভোজের আয়োজন সফল করতে পুলিশ নিরাপত্তা দেবে বলেও জানান ওসি মুহাম্মদ মহব্বত কবীর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *