শ্যামপুরে ৪ সন্তান জননী উধাও সাময়িকী এক ব্যক্তিকে খুঁজে বের করেন!

শ্যামপুরে ৪ সন্তান জননী উধাও সাময়িকী এক ব্যক্তিকে খুঁজে বের করেন!

 

 

মোঃ ফাজলে রাবী

 

শ্যামপুরে পরকিয়া প্রেমের ফাদেঁ পড়ে ৪ নারী নারী নারীর সাথে ৪ নারী জননী সম্প্রদায়ের এক গৃহবধূ উধাও এক দলের সদস্য এখনো খুঁজে বের করেন।

 

অধিভুক্তভোগী পরিবার থেকে অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের উদ্ধারের জন্য দু’টি নুন্যতম কোন কথা বলে!প্রচারটি রংপুর সদর দক্ষিণ চন্দনপাট ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামেপাড়া।

 

অভিযোগ, একই সমর্থক অযোধপুর টেপুরড় এলাকা দক্ষিণা চন্দ্র রায়ের ছেলে ৪ সন্তানের সম্মানিত প্রদ্বীপ রায় প্রায় বছর পূর্বে শ্যামপুর বন্দর (হলকার মোড়ে) দোকান ভাড়া নিয়ে গ্রিল/ওয়েলয়েলডিং ব্যবসা শুরু করে। ব্যবসা করাকালীন সময়ে তার বাজারের জন্য অনুমোদন শ্যামপুর গ্রামেরপাড়া মৃতঃ হুজুর আলীর ছেলে মোঃ ঈসামাইল হোসেনের স্ত্রী ৪ সন্তানের জননী মোছাঃ ঈসামাইল বেগম বেগমের সাথে গোপনে পরকিয়া প্রেমে পড়েন।

 

এই পরকিয়া প্রেমের জেরেই প্রায় ১ বছর পূর্বে গত ১৭ রমজানে বাবার বাড়ি ময়নাকুড়ি যাওয়ার কথা বলেছে তাছলিমা বেগম তার সাথী আক্তারনগরী ৭ বছর বয়সী শিশুকে মেয়ের সঙ্গে প্রদ্বীপের হাত ধরে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমায়।

পরে এ খবর জানানি হলে অনেক খোজাখুজির পরেও প্রদ্বীপ তাছলিমার ও কোন খোজনি।

 

খোঁজনির সাথে নিয়ে নিয়ে ৭ বছরের মেয়ে সাথী আক্তারও।

এঘটনায় তাছলিমার স্বামী ঈসাম হোসেন রংপুর সদর কোতয়ালী সাধারণ সেই সময় অভিযোগ/পক্ষের পক্ষ থেকে কোন জিকিতা অভিযোগের অভিযোগে অংশ নেন।

বর্তমানে স্ত্রী, শিশু সাশ্রথী(৭) আছেন, না মরেবে তাও বলতে পারেন ইসমনা।

 

স্ত্রী ও ৭ বছরের মেয়ে সাথীকে উদ্ধারে সহায়তায় ঈসমাইল আইন প্রয়োগকারী সংশ্লিষ্ট সংস্থার/কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ ও দৃষ্টি কামনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *