রংপুরে আওয়ামীলীগের প্রার্থী চূড়ান্ত হওয়ায় আনন্দে ভাসছে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা

রংপুরে আওয়ামীলীগের প্রার্থী চূড়ান্ত হওয়ায় আনন্দে ভাসছে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা

হীমেল কুমার মিত্র স্টাফ রিপোর্টার

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুরের ৬টি আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের মনোনয়ন চূড়ান্ত হওয়ার পরে আনন্দে ভাসছে নেতা-কর্মীরা। তারা আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করে স্বাগত জানাচ্ছেন।

যারা মনোনয়ন পেয়েছেন তারা হলেন, রংপুর-১ আসনে এ‍্যাড. রেজাউল করিম রাজু, তারাগঞ্জ-বদরগঞ্জ-২ আসনে আবুল কালাম আহসানুল হক ভিউক চৌধুরী, রংপুর -৩ আসনে রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল, কাউনিয়া-পীরগাছা-৪ আসনে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, মিঠাপুকুর -৫ আসনে রাশেক রহমান, পীরগঞ্জ -৬ আসনে সংসদের স্পীকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

(২৬ নভেম্বর ) রবিবার বিকেলে রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি।

নৌকার মনোনীত প্রার্থী করার খবরে রংপুরের ৬টি নির্বাচনী এলাকায় আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করেছেন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দগণ।

রংপুরের ৬টি আসনে ৩৪ জন মনোনয়ন প্রত‍্যাশি ছিলেন। গঙ্গাচড়া আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ‍্যাড. রেজাউল করিম রাজু। তিনি দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন সকল ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করতে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।

রংপুর সদর-৩ আসনের মনোনয়ন পেয়েছেন রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল। তিনি তার অনুভূতি ব‍্যাক্ত করে বলেন, রংপুরের উন্নয়নের স্বার্থে নৌকা মার্কার কোন বিকল্প নাই। বঙ্গবন্ধু কন‍্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নৌকা মার্কাকে বিজয়ী করতে সবাইকে এক যোগে কাজ করতে হবে।

আগামী ২০২৪ সালের ৭ই জানুয়ারি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ৩০শে নভেম্বর, মনোনয়নপত্র যাচাইবাছাই হবে ১লা থেকে ৪ঠা ডিসেম্বর, মনোনয়ন আপিল ও নিষ্পত্তি ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থীতা প্রত‍্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ১৮ ডিসেম্বর, নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পযর্ন্ত এবং ভোটগ্রহণ ৭ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *