মাত্র ১২ ঘণ্টার মধ্যে কোরবানীর বর্জ্য অপসারন সফল হয়েছে

মাত্র ১২ ঘণ্টার মধ্যে কোরবানীর বর্জ্য অপসারন করতে সফল হয়েছেন রংপুর সিটি করপোরেশন
রংপুর মহানগরীতে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণে ২৪ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেয়া হলেও মাত্র ১২ ঘণ্টার মধ্যে বর্জ্য অপসারন করতে সফল হয়েছেন রংপুর সিটি করপোরেশন।
গত রোববার ঈদ-উল-আযহার দিন দুপুর ২টা ১১ মিনিট থেকেই বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম শুরু করে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা। কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ অভিযানের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ মোঃ সামছুল হক।
নগরীর প্রধান সড়কসহ বিভিন্ন বাসা-বাড়ির জবাইকৃত স্থান থেকে বর্জ্য সংগ্রহ করে ট্রলি, রিক্সা ভ্যান ও ময়লা বহনকারী ট্রাকে করে নির্দিষ্ট ডাস্টবিন ও নির্ধারিত স্থানে ডাম্পিং করা হয়। পরে বর্জ্য অপসারনের জন্য রাত ১২ পর্যন্ত নগরীর কলাবাড়ী. নাসনিয়া ও শরেয়ারতল এলাকায় ডাম্পিং পয়েন্টে নিয়ে যাওয়া হয়। রাতে নগরীর প্রধান সড়কসহ গুরুত্ত্বপূর্ন যে সব স্থানে কোরবানী করা হয়, সেই সব স্থান পানি দিয়ে ধুয়ে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করণ ও ব্লিচিং পাউডার ছিটিয়ে দূষণমূক্ত করা হয়। নগরীর বিভিন্ন অলি-গতিতে পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের বর্জ্য অপসারণ কাজে নিয়োজিত থাকতে দেখা গেছে।
রংপুর সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে একটি পরিচ্ছন্ন নগরীর উপহার দেওয়ার প্রত্যায় নিয়ে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের ৩টি ইউনিটে ১ হাজার ৪২জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী বর্জ্য অপসারন কাজ করছেন। বিগত বছরের ঈদ-উল-আযহার সফলতা ও প্রশংসা ধরে রাখার লক্ষে দ্রুত সময়ের মধ্যে বর্জ্য অপসারণ করে এবারো সেই সফলতা ধরে রাখলেন রংপুর সিটি কর্পোশেন। কোরবানীর বর্জ্য অপসারণের জন্য পবিত্র ঈদ-উল-আযহায় কোরবানীর জন্য ৩৩টি ওয়ার্ডে ১১৭টি স্থান নির্ধারণ করে দিয়ে ছিলেন রংপুর সিটি কর্পোরেশন।
রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ মোঃ সামছুল হক জানান, কয়েক বছরের অভিজ্ঞতাকে
কাজে লাগিয়ে এবারও ১২ঘন্টার মধ্যেই কোরবানীর বর্জ্য অপসারণ করা হবে। এজন্য তিনি নগরবাসীর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। এদিকে ১২ঘন্টার মধ্যে নগরীর বর্জ্য অপসারন করা হলেও ‘ঈদের ৩ দিনে অনেকে কোরবানী করে থাকেন। তাই এই ৩দিন সার্বক্ষনিক কোরবানির বর্জ্য অপসারণ কাজে নিয়োজিত থাকবেন পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা।
রংপুর সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত কমিটির চেয়ারম্যান ও ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ মাহবুবার রহমান মঞ্জু বলেন, নগরীর ৩৩টি ওয়ার্ডে ৩টি জোনের মাধ্যমে ‘১ হাজার ৪২ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী, ১২৫টি ট্রলি ও রিক্সা ভ্যান এবং ৩০ টি ট্রাক নিয়োজিত রয়েছে। সেই সাথে কোরবানীর নির্দিষ্ট স্থান পরিস্কার করার জন্য পরিচ্ছন্নতা কর্মী ও ব্লিচিং পাউডারের ব্যবস্থা করছে।
এদিকে রংপুর সিটি কর্পোরেশনে শতভাগ কোরবানির বর্জ্য অপসারণ নিশ্চিত করার লক্ষে  নগরবাসীর সুবিধার্থে হট লাইন নম্বর চালু করা হয়েছে। যার নম্বর-০১৭৩৩৩৯০১৫০ ও ০১৭১৮৫৪৩১৫৭ /০১৭২৭৮৯৮১৯০। এবার নগরীর ৩৩টি ওয়ার্ড থেকে ঈদের প্রথম দিন রাত ১২টা পর্যন্ত ২০০টন বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। অপসারিত বর্জ্য নগরীর কলাবাড়ি, নাসনিয়া ও শরেয়ারতল এলাকায় ডাম্পিং করা হচ্ছে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন রংপুর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ মাহামুদ হাসান মৃধা, জাতীয় পার্টি ২৩নং ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি মাহাবুব হাসান সোহেল, জাতীয় ছাত্র সমাজ রংপুর মহানগর সভাপতি ইয়াসির আরাফাত আসিফ, রংপুর সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা (জোন-১) এর সহকারী ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান মিজু, (জোন-২) এর সহকারী ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোঃ মোঃ হাসান রাহী ও (জোন-৩) এর সহকারী ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোঃ শাহিনুর রহমান, মেয়র মহদয়ের সহকারী শফিকুল ইসলাম ওরফে হরকাতুল জিহাদ, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ এর কো-অডিনেটর রোশনা খাতুন ও মনিটরিং অফিসার জাহানারা খাতুনসহ রংপুর সিটি কর্পোরেশনের অন্যান্য কর্মকর্তা, কর্মচারী ও স্থানীয় সূধীজন।
এম. মিরু সরকার
তাং- ১০.০৭.২০২২্ইং
মোবাঃ- ০১৭১৭৩১৬২৫১

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *