প্রেসিডেন্ট শ্রীলঙ্কায় নতুন প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রিসভা নিয়োগ করছেন

 

গোতাবায়ার বড় ভাই ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে দেশটিতে মারাত্মক সহিংসতার মধ্যে পদত্যাগ করেন।

 

চলতি সপ্তাহে শ্রীলঙ্কায় নতুন প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রিসভা নিয়োগ করবেন বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে।

 

গোতাবায়া রাজাপাকসে বলেন, নতুন প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রিসভা ২২৫ আসনের সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠদের মধ্য থেকে হবে। সংসদকে আরও ক্ষমতা দেওয়ার জন্য তিনি সাংবিধানিক সংস্কার আনবেন বলেও জানান।

 

 

বুধবার এক বিবৃতিতে গোতাবায়া বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এবং দেশ যাতে নৈরাজ্যের দিকে না যায়, সেই সঙ্গে স্থগিত সরকারের কার্যাবলী চলমান রাখতে নতুন সরকার গঠনের পদক্ষেপ নিচ্ছি।

 

এদিকে শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর বলেছেন, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ফিরে না আসলে তিনি কয়েক সপ্তাহের মধ্যে পদত্যাগ করবেন।

 

২২ মিলিয়ন লোকের দ্বীপরাষ্ট্রটিকে তার সবচেয়ে খারাপ অর্থনৈতিক সংকট থেকে বেরিয়ে আসার পথ খুঁজে পেতে সহায়তার জন্য গত মাসে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন পি নন্দলাল ওয়েরাসিংহে। তিনি বলেন, অশান্তি থামাতে স্থিতিশীল সরকার অপরিহার্য।

 

ওয়েরাসিংহে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি প্রেসিডেন্ট এবং অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতাদের স্পষ্টভাবে বলেছি- আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠিত না হলে পদত্যাগ করব।

 

তিনি বলেন, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা না থাকলে কে কেন্দ্রীয় ব্যাংক চালায়, তাতে কিছু আসে-যায় না। অর্থনৈতিক অবনতি ঠেকানোর কোনো উপায় থাকবে না।

 

শ্রীলঙ্কার সাধারণ মানুষ দেশটিতে ক্রমবর্ধমান সংকটের জন্য গোতাবায়া রাজাপাকসে এবং তার পরিবারকে দায়ী করছেন। দেশটিতে রান্নার গ্যাস, জ্বালানি ও ওষুধসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের ব্যাপক ঘাটতি দেখা দিয়েছে।

 

এদিকে, অব্যাহত বিক্ষোভের মধ্যে পুলিশ ও সশস্ত্র বাহিনীকে জনসাধারণের জীবন ও সম্পদের জন্য হুমকি সৃষ্টিকারীদের গুলি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এরপর সাঁজোয়া যানবাহনে সৈন্যরা বাণিজ্যিক রাজধানী কলম্বোর রাস্তায় টহল দিতে দেখা গেছে।

 

( সূত্র : আলজাজিরা )

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *