টাকা নিয়ে দ্বন্দ্বে পিতাকে হত্যা, আটক-৪

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় টাকা নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে ফজলুল হক (৫০) নামের এক কৃষককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১২ জুলাই) সকালে উপজেলার ছাপরহাটি ইউনিয়নের খানপাড়া গ্রামের একটি পুকুর থেকে ফজলুল হকের মরদেহ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরকার ইফতেখার মোকাদ্দেম।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফজলুল হকের ছেলে ও পরিবারে সকল সদস্যারা প্রায় টাকার জন্য তাকে মারপিট করে আসছিলেন। তাকে খেতে না দেওয়াসহ নানা রকম নির্যাতন করতো। তার পরিবারের সদস্যারাই তাকে মেরে ফেলছে বলে অভিযোগ তাদের।

এলাকাবাসী আরও জানায়, সোমবার (১১ জুলাই) রাতে ফজলুল হকের ছেলে আরিফ মিয়া, পুত্রবধূ নিলুফা বেগম ও স্ত্রী আমেনা বেগম নিহতের কাছে টাকা চায়। এই টাকা দিতে অস্বীকার করলে রাতেই তাকে মারধর করে মেরে ফেলে তারপর তার মরদেহ পুকুরে ফেলে দেওয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার সকালে ছোট ছেলে তার বাবা ফজলুল হকের মরদেহ পুকুরে দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে গ্রামবাসী ছুটে আসে।

মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে ছাপরহাটি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান কনক কুমার বলেন, এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি করছি।

এ বিষয়ে সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরকার ইফতেখার মোকাদ্দেম জানান, খবর পেয়ে ফজলুল হকের মরদেহ পুকুর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের পরিবারের ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। এরা হলেন, নিহতের স্ত্রী আমেনা বেগম, ছেলে আরিফ, পুত্রবধূ নিলুফা ও আরিফের শ্বশুর আবু হানিফ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *