নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সন্ধ্যা নদীতে জেলেদের চলছে ইলিশ নিধন।

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সন্ধ্যা নদীতে জেলেদের চলছে ইলিশ নিধন।

ক্রাইম রিপোর্টার সোহানুর রহমান সোহানঃ
উজিরপুরে মা ইলিশ নিধনের মহোৎসব চলছে। ঢিলে ঢালা অভিযানে বেপরোয়া অসাধু জেলেরা প্রশাসনের নাকের ডগায় অবাধে চলছে ইলিশ নিধন, যেন দেখার কেউ নেই। গতকাল বৃহষ্পতিবার বেলা ১২ টার দিকে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় উজিরপুর উপজেলা পরিষদ থেকে মাত্র ৬শত মিটার দুরে শিকারপুর মেজর এম এ জলিল সেতুর দক্ষিন পাশে সন্ধ্যা নদীর বিভিন্ন স্থানে শতাধিক অসাধু জেলেরা সরকারের কঠোর নির্দেশ, মা ইলিশ নিধনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে প্রকাশ্যে ঝাঁকে ঝাঁকে নৌকা নিয়ে অবাধে ইলিশ নিধন করছে।

আরো জানা যায় উজিরপুর পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের রাখালতলা গ্রামের রুহিতোষ দাসের দুই ছেলে বিমল দাস ও হিরন দাসের নের্তৃত্বে প্রতিদিন অবাধে শতাধিক জেলেরা কারেন্ট জাল পেতে মা ইলিশ নিধন করছে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্থানীয়রা।
একাধিক ব্যক্তি জানিয়েছে নামে মাত্র ইলিশ নিধনের অভিযান চলছে। প্রতিদিনই নদীর বিভিন্ন স্থানে ঝাঁকে ঝাঁকে নৌকা নিয়ে জাল পেতে অসাধু জেলেরা ইলিশ মাছ ধরছে।নদীর দুই পাড়ে তাদের গুপ্তচরের কাজ করছেন বিভিন্ন বয়সের নারী ও পুরষরা।

প্রশাসন, সাংবাদিক ও পুলিশের উপস্থিতি টের পেলেই ওই সুচতুর গুপ্তচররা জেলেদের ফোন করে পালিয়ে যেতে সহায়তা করে থাকেন। এ ব্যপারে ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ নাসির উদ্দিন সিকদার ক্রাইম রিপোর্টার সোহানুর রহমান সোহান কে জানান আমার ওয়ার্ডের সরকারি সুবিধাভোগী কোন জেলে অন্যায় ভাবে আইনকে উপেক্ষা করে মা ইলিশ নিধন করলে তাদের নাম সকল ধরনের সরকারি সাহায্যের তালিকা থেকে নাম কেটে দেয়া হবে।

উজিরপুর উপজেলা মৎস কর্মকর্তা শিমুল রানী পাল জানান আমাদের একটি ট্রলার সবসময় নদীতে টহলে থাকে।আমরা খবর পেয়ে ট্রলার নিয়ে ঘটনাস্থল ছুটে যাওয়ার পূর্বেই তারা পালিয়ে যায়। আমি সাধ্যমত অভিযান চালাচ্ছি। এরপরেও কেউ জাল পেতে ইলিশ মাছ ধরলে আমার কিছুই করার নাই।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রনতি বিশ্বাস sirsonews24 কে জানান মা ইলিশ নিধন রক্ষায় আমাদের কঠোর অভিযান চলছে এবং অব্যাহত থাকবে। সুএঃ sirsonews24.comতাং-০৯/১০/২১ইং শনিবার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *