নিখোঁজের একদিন পর গমক্ষেত থেকে এক তরুণীর লাস উদ্ধার

নিখোঁজের একদিন পর গমক্ষেত থেকে এক তরুণীর লাস উদ্ধার

মোবাশ্বের নেছারী কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলায় নিখোঁজের একদিন পর রেখা খাতুন (২২) নামে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে রৌমারী থানা পুলিশ। সোমবার (৬ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে

উপজেলা ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে ফলুয়ার চরে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় পাওয়া যায়। নিহত রেখা উপজেলার সদর ইউনিয়নের কান্দাপাড়া গ্রামের আবুল হাশেমের কন্যা। জানা যায়, শনিবার রাত ১২টার দিকে মায়ের কাছ থেকে ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নিয়ে বাড়ি থেকে বের হলে নিখোঁজ হন রেখা।

পরে মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। আজ বেলা ১১টার দিকে পরিবার খবর পান ব্রহ্মপুত্রের চরে গমক্ষেতে গলায় ওড়না পেঁচানো এক তরুণীর মরদেহ পড়ে আছে।

পরে নিহতের ছোট ভাই ওমর ফারুক ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ শনাক্ত করেন। পরিবারের দাবি, তাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। শ্বাসরোধ করে হত্যার বিষয়টি

প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে রৌমারী থানায় এজাহার দিয়েছেন। নিহতের বাবা আবুল হাশেমের দাবি, যারা আমার মেয়েকে হত্যা করেছে দ্রুত তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হোক। বন্দবেড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের বলেন, লোক মারফত খবর পেয়ে পুলিশকে জানানো হয়।

পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রুপ কুমার সরকার বলেন, এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামি করে এজাহার দায়ের করেছেন। ওই তরুণীকে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত করলে প্রকৃত রহস্য উদঘাটন হবে।

যেহেতু ক্লুলেজ হত্যাকাণ্ড, দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রকৃত হত্যাকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *