কুড়িগ্রামে বর্ণিল আয়োজন ও যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা দিবস পালন

কুড়িগ্রামে বর্ণিল আয়োজন ও যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা দিবস পালন

মোবাশ্বের নেছারী কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামে বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্যদিয়ে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনে কুড়িগ্রামের সকল সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি ভবনে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা এবং শহরে সহজে দৃশ্যমান ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

আজ সকালে কুড়িগ্রাম শহরের কলেজমোরস্থ স্বাধীনতার বিজয় স্তম্ভ জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশ প্রশাসনসহ সকল দপ্তরের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।এছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ ভবন ও স্থাপনাসমূহে আলোক সজ্জায় সজ্জিত করা হয়।

কুড়িগ্রাম জেলা স্টেডিয়াম মাঠে সকালে কুচকাওয়াজ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল আরীফ, পুলিশ সুপার আল আসাদ মো. মাহাফুজুল ইসলামসহ সকল দপ্তরের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

কুড়িগ্রামে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপনে বিভিন্ন ইভেন্টে অংশগ্রহনকারীদের মূল্যায়ন করে ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারকারীদেরকে পুরষ্কৃত করা হয়। জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক মো: মোদাব্বের হোসেন প্রধান বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করায় তাঁকেও কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করা হয়।

এদিকে বর্ণিল আয়োজন ও যথাযোগ্য মর্যাদায় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়। দিবসটি উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) সকালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালের সামনে বেলুন উড়িয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হাসিবুর রশীদ।

শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাসের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্বাধীনতা স্মারকের সামনে এসে শেষ হয়।স্বাধীনতা স্মারকে মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হাসিবুর রশীদ ও ট্রেজারার প্রফেসর ড. মজিব উদ্দিন আহমদ। এরপর পর্যায়ক্রমে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদ, বিভাগ, আবাসিক হল, ইনস্টিটিউট, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ,

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ, নীল দল, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন, কর্মচারী ইউনিয়নসহ শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়।
এরপর এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বেরোবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. বিজন মোহন চাকীর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মন্ডল আসাদ, মার্কেটিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শেখ মাজেদুল হক,

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাহামুদুল হক, লোকপ্রশাসন বিভাগের প্রভাষক সাইফুল ইসলাম, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার গোস্বামী, মাহবুবার রহমান ও বেরোবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান শামীম। ভার্চুয়াল আলোচনা সভাটি সঞ্চালনা করেন সৈয়দ আনোয়ারুল আজিম।#

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *