কমবে হৃদরোগের ঝুঁকি, দশটায় ঘুমাতে গেলে

সকাল সকাল ঘুমাতে যাওয়া স্বাস্থ্য, সম্পদ এবং জ্ঞান-তিনটির জন্যই ভালো তা তো আমরা ছোটবেলা থেকেই শুনে আসছি। সম্পদ এবং জ্ঞানের ব্যাপারে একথা সত্য হোক বা না হোক, স্বাস্থ্যের জন্য যে একথা আসলেই যথার্থ এবার তার প্রমাণ দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

 

প্রায় নব্বই হাজার ভলান্টিয়ারের ওপর গবেষণা চালিয়ে বিজ্ঞানীরা দেখেছেন, রাত দশটা থেকে এগারোটার মধ্যে ঘুমাতে যাওয়া হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী। গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে ইউরোপিয়ান হার্ট জার্নালে।

 

সেখানে বলা হয়েছে, মানুষের শরীরে যে প্রাকৃতিক ঘড়ি আছে তার সাথে জীবনযাপনের সময়ের সমন্বয় করলে তা হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়। স্বাস্থ্য ভালো রাখার ক্ষেত্রে শরীরের এই প্রকৃতি প্রদত্ত ঘড়িকে মেনে চলা খুবই জরুরি।

 

এই গবেষণায় দেখা গেছে, অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে যারা পরবর্তীতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন তাদের বেশিরভাগই রাত দশটার আগে বা এগারোটার পরে ঘুমাতে গেছেন। গবেষকরা বলছেন, এই সময়ের হেরফের হলে তা শরীরের প্রাকৃতিক ঘড়ির কাজকে বাধাগ্রস্ত করে।

 

তারা আরও বলেন, ঘুমাতে যাওয়ার জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক সময় হলো মধ্যরাতের পরে। দীর্ঘমেয়াদে হৃদযন্ত্রকে ভালো রাখতে হলে ঘুমাতে যাওয়ার আদর্শ সময় হলো রাত দশটা থেকে এগারোটার মধ্যে। আর ঘুমাতে হবে সাত থেকে ৯ ঘণ্টা।

 

তবে, এর মধ্যে ব্যক্তির খাদ্যাভ্যাস, শরীরচর্চার পরিমাণ, বয়স এবং জিনগত বৈশিষ্ট্যও প্রভাব বিস্তার করে। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা, নিয়মিত শরীরচর্চা করা, লবণ এবং অ্যালকোহল খাওয়া কমানো এবং সুষম খাদ্যাভ্যাস বজায় রাখা জরুরি। /71tv

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *