কবিতা লিখে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড করলেন সিরাজগঞ্জের জনপ্রিয় কবি মোঃ হেদায়েতুল ইসলাম

কবিতা লিখে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড করলেন সিরাজগঞ্জের জনপ্রিয় কবি মোঃ হেদায়েতুল ইসলাম

হাইপার পোয়েম লিখে বিশ্ব রেকর্ড করলেন কিংবদন্তী জনপ্রিয় কবি মুহাম্মদ হেদায়েতুল ইসলাম (হিমেল) । হাইপার পোয়েম লিখে তিনি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড করেন। ১৮ই সেপ্টেম্বর ২০২৩ এ বিশ্ব রেকর্ড হয়। রেকর্ড করা বইটির নাম হচ্ছে হাইপার পোয়েম। উখিয়াতো প্রকাশনী প্রকাশ করেছে হাইপার পোয়েম নামক এই বইটি। প্রকাশের পর থেকেই বইটি সারা বিশ্বে সাহিত্য প্রেমীদের মাঝে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

কবি মুহাম্মদ হেদায়েতুল ইসলাম উত্তরবঙ্গের তথা সিরাজগঞ্জের কৃতি সন্তান‌। তার লেখা পৃথিবীর বহু দেশে বহু ভাষায় এ পর্যন্ত অনুদিত হয়েছে। পৃথিবী বিখ্যাত আমেরিকার প্রডিগি একাডেমী সহ অত্যন্ত স্বনামধন্য বহু সংগঠন ও সংস্থা তাকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করেছে সাহিত্যে তার অসামান্য অবদান রাখার জন্য। তিনি বিনয়ের সাথে আহ্বান জানান আসুন সাহিত্যের চর্চা করি সাহিত্যের উৎকর্ষ সাধনে সকলে একযোগে কাজ করি। সম্ভাবনাময় মানুষগুলোকে তুলে আনার জন্য যার যার জায়গা থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাই।এ বিশ্ব রেকর্ড শুধু আমার নয় বাংলাদেশের সাহিত্যের এটা বিশ্ব রেকর্ড। দেশের আনাচে-কানাচে বহু প্রতিভাবান সম্ভাবনাময় মানুষ রয়েছে যাদেরকে তুলে না প্রয়োজন।

অন্যান্য বিষয়ে রিয়েলিটি শো হলেও সাহিত্যের বিষয়ে উল্লেখযোগ্য প্রতিযোগিতা এবং এর চর্চা খুবই কম অতি দ্রুত এই বিষয়কে আরও সম্প্রসারিত করতে হবে লেখকদেরকে উৎসাহিত করতে হবে উজ্জীবিত করতে হবে। কয়জন লেখক কয় টাকা পান সরকারি এবং বিভিন্ন মাধ্যম থেকে বিষয়টিকে আমরা একবারও দেখেছি তাদের আয় এর উৎস কি তারা সম্মানী হিসেবে কি কি পাচ্ছেন এগুলো যেন দেখার কেউ নেই। আসুন কবি ও লেখকদের পাশে দাঁড়াই শিল্পসাহিত্যের চর্চা বেশি বেশি করে করি। যারা সাহিত্যের কারিগর তাদেরকে আরো বেশি উৎসাহিত করি। অন্যথায় আমাদের শিল্প-সাহিত্য ধ্বংসের মুখে পড়ে যাচ্ছে। অতি দ্রুত সাহিত্যের সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কে যথাযথ সম্মানীর ব্যবস্থা করা উচিত।

পাশাপাশি নানাবিধ সুযোগ-সুবিধা তাদেরকে দেওয়া প্রয়োজন তাদের বিকাশের জন্য । শিল্প ও সাহিত্য বাংলাদেশের রয়েছে অনেক বেশি সম্ভাবনা। বহু লেখক কবি মানবেতর জীবন যাপন করছে এদের দিকে সঠিক দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট বিনয় আবেদন জানাচ্ছি। সত্যিকার অর্থে কবি মুহাম্মদ হেদায়েতুল ইসলাম এর লেখায় মানুষের বাস্তবিক চিত্র তিনি ফুটিয়ে তোলেন সুনিপুণ লেখনীর মধ্য দিয়ে। এত শক্তিশালী লেখা সমসাময়িক খুব কম লেখক এর মাঝেই পাওয়া যায়। তার লেখাতে আছে শক্তি, উদ্যাম, দৃঢ়তা, সাহসিকতা, গতি, অধ্যবসায়, ধৈর্য, প্রচন্ড ইচ্ছা শক্তি, কৌশল, দূরদর্শিতা, জয়, সফলতা, ব্যর্থতা থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর মন্ত্র এগুলো সবকিছুই পাবেন।

অত্যন্ত সম্ভাবনাময় এই “তেজী কবির” জন্য রইল অন্তরের অন্তস্থল থেকে দোয়া ও ভালোবাসা। আশা নয় বিশ্বাস করছেন গুণীজন একদিন বাংলা সাহিত্য বিশ্বের বুকে রাজত্ব করবে এই মহান লেখকের হাত ধরে। অত্যন্ত সৎ, সদালাপি, নিরহংকার, মানবতাবাদী, দূরদর্শী, সম্ভাবনাময়ী, অমায়িক, দার্শনিক, সময় উপযোগী চিন্তাশীল এই মানুষটির জন্য রইল শুভকামনা। আপনার সকলে তার জন্য মন থেকে দোয়া করবেন। তিনি সকলের দোয়া প্রার্থী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *