একটু বেশিই আকৃষ্ট

 

পুরুষদের প্রতি আমি একটু বেশিই আকৃষ্ট : দেবচন্দ্রিমা

টেলিভিশনের জনপ্রিয় জুটির মধ্যে একসময় সায়ন্ত মোদক আর দেবচন্দ্রিমা সিং রায় ছিল অন্যতম সেরা জুটি। সম্প্রতি এরাও নিজেদের প্রেমের সম্পর্ককে ইতি টেনেছেন রিলের এই জনপ্রিয় জুটি। সায়ন্ত ও দেবচন্দ্রিমার প্রেমের সূত্রপাত হয় রিল লাইফে প্রেম করতে করতে। কালারস বাংলা-র ‘কাজললতা’ ধারাবাহিকে কাজের সময় থেকেই দুজনের বিশেষ বন্ধুত্বের সূত্রপাত। প্রায় তিন বছর পর সেই সম্পর্ককে সকলের সামনে আনলেন ২০২০র ১৪ ফেব্রুয়ারিতে। আর নিজেদের ভালোবাসা এই দিনেই উদযাপন করেছিলেন দেবচন্দ্রিমা।

 

টেলিটাউনের এই জুটি এক সঙ্গেই থাকতেন এবং তাদের দুটি পোষ্য‌ও আছে। প্রায়শই নিজেদের ভালোবাসার নানান মুহূর্ত তারা তুলে ধরতেন নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায়। কিছুদিন আগেই দেবচন্দ্রিমার জন্মদিন উদযাপন করতে দেবচন্দ্রিমা এবং সায়ন্ত পৌঁছে গিয়েছিলেন মালদ্বীপে। মালদ্বীপে নানান রোম্যান্টিক মুডে ধরা পড়েছেন। তবে মাঝে গুঞ্জন শুরু হয় এদের সেই সম্পর্কের ভাঙনের কথা। কিছুদিন আগে নিজেদের ব্রেকআপের কথা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন সাঁঝের বাতি খ্যাত জনপ্রিয় অভিনেত্রী।

 

 

বর্তমানে দেবচন্দ্রিমা ‘সাঁঝের বাতি’ ধারাবাহিকের উত্তর পূর্ব নিয়ে বেশ ব্যস্ত। তিনি এখন আর ‘চারু’ নন, তিনি এখন ‘চিকু’। তিন বছর ধরে ‘চারু’ হিসেবেই দর্শক মনে পাকাপাকি জায়গা করে নিয়েছিলেন দেবচন্দ্রিমা সিংহ রায়। এই ধারাবাহিকের ‘আর্য’ অর্থাৎ রিজওয়ান রব্বানি শেখের সাথে জুটি বেঁধে কাজ করছেন। দেবচন্দ্রিমার ব্রেকআপ হওয়ার কারণ হিসেবে অনেকে রিজওয়ানেকে দায়ী করেন। রিজওয়ানের সাথে ঘনিষ্ঠতার কারণে সায়ন্ত আর দেবচন্দ্রিমার সম্পর্কে ফাটল হয়। সত্যিই কি তাই?

 

তবে রিজওয়ান আর সায়ন্তের সাথে নিজের সম্পর্ক নিয়ে সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমের দেওয়া সাক্ষাৎকারে কথা বলতে শোনা গেল অভিনেত্রীকে। দেবচন্দ্রিমা প্রথমেই স্পষ্ট করে দেন, ‘রিজওয়ান আর তিনি খুব ভালো বন্ধু। বলতে গেলে এই ইন্ডাস্ট্রিতে তার সবথেকে ভালো বন্ধু। রিজওয়ানের সঙ্গে তার কোনও প্রেম নেই। আর হবেও না। এই এক কথা বলতে বলতে তিনি ক্লান্ত।’

 

আর সায়ন্তর ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘তারা সম্পর্কে জড়াই নিজেদের ভালো রাখার জন্য। যদি সেখানেই ভালো না থাকি, তা হলে তো একসাথে থাকার কোনও মানেই নেই। সেরকম পরিস্থিতি তৈরি হতেই তিনি নিজেকে এই সম্পর্ক থেকে সরিয়ে এনেছি।’ ‘সাঁঝের বাতি’র চিকু আরও জানান, নিজের সম্পর্কে এত ধরনের গুঞ্জন তিনি শুনেছেন যে আর এখন অবাক হন না! এমনকী, সেই সব গুঞ্জন নাকি অভিনেত্রীর মা-ও তাকে হোয়াটসঅ্যাপ করে পাঠান আর সাথে একটা হাসির স্মাইলি ইমোজি। অভিনেত্রীর কথায়, ‘যে মানুষগুলো আমার কাছে গুরুত্ব পায়, তারা সত্যিটা জানে। আর কী চাই আমার?’

 

তিনি আরও বলেন, পুরুষদের প্রতি আমি বেশি আকৃষ্ট। তাই পুরুষদের নাম-ই মাথায় আগে আসে। মহিলাদের তালিকায় কারা কারা আছেন, সে কথা একটু ভাবতে হয়। তবে ‘পরিণীতা’-তে শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়ের অভিনয় দেখে চমকে গিয়েছিলাম। কী যে ভাল অভিনয় করেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *